আমাদের সম্পর্কে

বাংলাদেশের মানুষের চাহিদা মিটিয়ে 25 বছরের বেশি সময় ধরে আমরা বাংলাদেশে রয়েছি। 50000 প্রান্তিক ব্যবহারকারী ও অংশীজনদের নিয়ে বর্তমানে আমাদের রয়েছে শক্তিশালী কমিউনিটি। এটা আমাদেরকে বাণিজ্যিক যানবাহন ও ট্রাক্টরের ক্ষেত্রে এদেশের এক শীর্ষস্থানীয় ব্রান্ডে পরিণত করেছে। এখানে আমাদের ব্যবসায় বৈচিত্র্য রয়েছে, যাতে বাণিজ্যিক যানবাহন, ব্যক্তিগত যানবাহন, ট্রাক্টর, জেনারেটর, নির্মাণ সামগ্রী, এবং কৃষি, তথ্য প্রযুক্তি ও সৌরসহ বহু খাত অন্তর্ভুক্ত। 

অটোমোটিভ

পার্সোনাল ইউভি, পিক-আপ,
টু হুইলার, থ্রি হুইলার,
ভারি বাণিজ্যিক যান

খামারের সরঞ্জাম

30 এইচপি – 70 এইচপি ট্রাক্টর

মাহিন্দ্রা পাওয়ারল

5 কেভিএ -600 কেভিএ
ডিজেল জেনারেটর

নির্মাণ সামগ্রী’র

ব্যাক হো লোডার,
মোটর গ্রেডার

বাংলাদেশ বরাবরই আমাদের বৈশ্বিক উন্নয়ন কৌশলের এক গুরুত্বপূর্ণ অংশ। বিশ্বের দ্রুততম প্রবৃদ্ধিশীল অর্থনীতি সম্পন্ন দেশগুলোর একটি হিসাবে এ দেশ কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ বাজারগুলোর একটি। আমরা এখানে আমাদের কার্যক্রম বাড়াতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং ঢাকায় আমাদের কান্ট্রি অফিস প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে 2017 সালে এই প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য হলো সময়ের পরিক্রমায় আমাদের স্থানীয় অংশীদারদের সঙ্গে কাজ করে স্থানীয়ভাবে সংযোজন ও উৎপাদনের মাধ্যমে ব্যবসা সম্প্রসারণ করা।

উল্লেখযোগ্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং প্রান্তিক ব্যবহারকারীদের জন্য মূলধনী পণ্যের মূল্য প্রদানকারী শিল্পোন্নয়নে সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে আমরা বিকশিত হতে চাই। গ্রাহকেন্দ্রিকতা নিশ্চিত করার প্রয়াসে আমরা অব্যাহতভাবে নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ এবং গ্রাহকের সন্তুষ্টির দিকে মনোনিবেশ করছি।

‘উন্নয়ন’ চেতনার বার্তাবাহী ‘চলো রে’ স্লোগানের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের উত্থান উদযাপনে আমরা গর্ব অনুভব করি। এটি নিজেদের ভবিষ্যত পরিবর্তন ও প্রথাগত কর্ম পদ্ধতি থেকে বেড়িয়ে আসতে আগ্রহী বাংলাদেশের জনগণের স্বপ্ন উদযাপনের মাধ্যমে সাধারণকে অতিক্রম ও জাতীর উন্নয়নে সহায়তা করে।

র‌্যাংগস, র‌্যাংকন অটোস, কর্ণফুলী লিমিটেড এর মতো এদেশের স্থানীয় ব্যবসায়িক গ্রুপগুলো আমাদের অংশীদার। মাহিন্দ্রা পিক-আপের জন্য সিকেডি সংযোজন করার পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে, স্থানীয় পরিবেশক র‌্যাংগস যা স্থাপন করবে। মাহিন্দ্রা স্করপিও সংযোজনের জন্য রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন উত্পাদন ইউনিট প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের সাথেও আমাদের একটি সংযোজন চুক্তি রয়েছে।

আমরা সবসময় গ্রাহক সেবার পুরোভাগে থাকার চেষ্টা করেছি এবং সর্বশেষে 2018 সালে “মাহিন্দ্রা কেয়ার” এর সার্বক্ষণিক হেল্পলাইন চালুর মধ্য দিয়ে আমরা গ্রাহকের অভিজ্ঞতাকে একেবারে নতুন পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছি। সর্বোচ্চ সুবিধা সৃষ্টির এই উদ্যোগ আমাদের গ্রাহকদের একটি বোতাম স্পর্শের মাধ্যমে অনন্য এক অভিজ্ঞতা প্রদান করে।”

আমাদের অংশীদার

র‌্যাংগস-

র‌্যাংগস গ্রুপ হলো বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান শিল্প গ্রুপ। 1979 সালে গৌরবময় যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশি কোম্পানিগুলোর মধ্যে এই গ্রুপ বর্তমানে এক প্রতিষ্ঠিত ও বিশ্বস্ত নাম। র‌্যাংগস (আরএমএল) 1998 সালে যাত্রা শুরু করে এবং বেচাকেনার ব্যবসা থেকে মাহিন্দ্রা ও আইশার এর মতো নামী ব্র্যান্ডের একমাত্র পরিবেশক হিসাবে বৈচিত্র্যময়তা অর্জন করে। সোহানা প্রথমে ট্রাক ও বাসের ক্ষেত্রে বাবাকে সহায়তা করার জন্য তার ব্যবসায় যোগ দেন, বেশিরভাগ নারীর জন্যই যা কঠিন। র‌্যাংগস মহিন্দ্রার বাণিজ্যিক যানবাহন, নির্মাণ সামগ্রী এবং ডিজেল জেনারেটরের পাওয়ারল ব্র্যান্ডের পক্ষে দেশব্যাপী ব্যবসা পরিচালনা করে।

র‌্যাংকন অটোস লিঃ-

র‌্যাংগস গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান র‌্যাংকন অটোস লিমিটেড হলো বাংলাদেশে বিভিন্ন ধরনের বাণিজ্যিক যানবাহনের আমদানিকারক। তারা 2002 সাল থেকে যাত্রা শুরু করে, এবং তখন থেকে উৎপাদন ও সেবার ক্ষেত্রে উৎকর্ষ অর্জনে অবিচল প্রতিশ্রুতির মাধ্যমে বেড়ে উঠছে। ঢাকার তেজগাঁওয়ে সদর দফতর স্থাপন করে তারা সারা দেশে মহিন্দ্রা ট্রাক ও বাস, ব্যক্তিগত যানবাহন এবং মাহিন্দ্রা ট্রাক্টরের পক্ষে ব্যবসা পরিচালনা করে।

কর্ণফুলী লিঃ-

1954 সালে মরহুম হেদায়েত হোসেন চৌধুরী কর্ণফুলী গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করেন, কর্ণফুলী নদীর নামানুসারে যার নামকরণ করা হয়। এটি বাংলাদেশের প্রথম ISO 9002 সনদ অর্জনকারী কোম্পানি। অনন্য বৈশিষ্ট্য ধারণকারী এই কোম্পানি মাহিন্দ্রা ট্রাক্টরের পক্ষে দেশের বেশিরভাগ অংশে ব্যবসা পরিচালনা করে।